৬ জুন হতে একাদশ ভর্তি শুরু হতে পারে

এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হবে আগামী ৩১ মে। ফলাফল প্রকাশের এক সপ্তাহের মধ্যে অনলাইনে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি কার্যক্রম শুরু হবে। আগামী ৬ জুন থেকে অনলাইন ভর্তি কার্যক্রম শুরুর প্রস্তাব শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছে আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব কমিটি। এ স্তরে ক্লাস কবে শুরু হবে সেটি নির্ভর করছে পরিস্থিতির ওপর। তবে, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আগস্ট থেকে ক্লাস শুরু করার লক্ষ্যে কাজ শুরু হবে।
ঢাকা বোর্ডের কর্মকর্তা বলেন, একাদশ শ্রেণির ভর্তি কার্যক্রম সংক্রান্ত প্রস্তাব আমরা মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছি। ৬ জুন থেকে অনলাইনে ভর্তি কার্যক্রম ৫০ দিনের মধ্যে শেষ করতে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। তিনটি ধাপে আবেদন গ্রহণ ও ফলাফল প্রকাশ করা হবে। ভর্তি কার্যক্রম শেষে একাদশ শ্রেণির ক্লাস শুরু হবে।
কবে থেকে ক্লাস শুরু হবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বর্তমান পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়ায় ক্লাস শুরুর সময় উল্লেখ করা হয়নি। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে অবহিত করে একাদশের ক্লাস শুরুর সময় নির্ধারণ করা হবে।
জানা গেছে, এ বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি। আগামী ৩১ মে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফলাফল শেষে একাদশ শ্রেণির ভর্তি শুরুর বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।
বোর্ড সূত্রে জানা যায়, এ বছর সম্পূর্ণ অনলাইনে ভর্তি কার্যক্রম পরিচালিত হবে। সম্ভাব্য সময় হিসেবে প্রথম ধাপের ভর্তি আবেদন গ্রহণ আগামী ৬ থেকে ১৬ জুন পর্যন্ত। ২৩ থেকে ২৭ জুন যাচাই-বাছাই, আপত্তি ও নিষ্পত্তি কার্যক্রম। আবেদন প্রক্রিয়া শেষে ৫ জুলাই প্রথম ধাপের ফল প্রকাশ করা হতে পারে।
দ্বিতীয় ধাপের আবেদন ১৪ জুলাই শুরু হয়ে চলতে পারে ১৭ জুলাই পর্যন্ত। তৃতীয় ধাপের আবেদন ২২ জুলাই শুরু হয়ে চলতে পারে ২৪ জুলাই পর্যন্ত এবং ওইদিনই রাতে ফল প্রকাশ করা হবে।

Related posts:

আড়িয়াল খা নদীতে ভেঙ্গে গেল চরমানাইর ইউনিয়নের একমাত্র নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়টি ।
অনুপাত প্রথা বাতিল: ৫০ ভাগ প্রভাষককে পদোন্নতির সুপারিশ
এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের সরকারি নিয়মে ঈদ বোনাস!
‘অ্যাভিগানে’র সাফল্য, উৎপাদন হবে বাংলাদেশেও
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়ছে
স্কুল-কলেজের কর্মচারীদের অনলাইনে পিডিএস পূরণ শুরু ৭ জুলাই
জাতীয়করনের প্রস্তুতি চলছে।
যেভাবে একাদশ শ্রেণীতে আবেদন করতে হবে
করোনায় শিক্ষার ক্ষয়ক্ষতি পোষাতে দুটি প্রস্তাব নিয়ে কাজ চলছে
প্রণোদনা পাচ্ছেন নন-এমপিও বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীরা
ফেসবুকে উচ্চ মাধ্যমিকের ক্লাস করার সুযোগ
এমপিওভুক্তির আবেদন : শিক্ষকদের যে ১৪টি তথ্য যাচাই করবেন কর্মকর্তারা
নিরবে অভাবের যন্ত্রণা সহ্য করতে হচ্ছে বেসরকারি এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের।
কে.জি স্কুলের শিক্ষকদের জন্য রেশন কার্ড ও ন্যুনতম মাসিক ৬০০০ টাকা সম্মানী ভাতা চাই।
আসন্ন বাজেটেই জাতীয়করণ চেয়ে প্রধানমন্ত্রীর নিকট শিক্ষকের খোলা চিঠি
প্রাইমারিতে রিটের কারনে চার বছর স্থগিত এক্সামে শুন্যপদে নিয়োগের দাবিতে ব্যাপক কুটনৈতিক ততপরতা অব্যয়ত...
সার্ভার জটিলতায় আবেদন করতে পারছেন না নতুন এমপিওভুক্ত প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা
এমপিও শিক্ষকদের বৈশাখী ভাতা ছাড় হোক
এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের উচ্চতর গ্রেড দ্রুত বাস্তবায়ন করার জন্য কতৃপক্ষের নিকট বিনীত অনুরোধ রইল।
করোনাঃ বাংলাদেশের আজকের আপডেট
খুব সহজে এবং সস্তায় কিনুন
Read more and more  বেসরকারি এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের মাসিক সরকারি অংশ ১ থেকে ৩ তারিখের মধ্যে উত্তোলনের ব্যবস্থা চাই।

Get involved!

Comments

No comments yet

Pin It on Pinterest